দুবাইয়ে বিধ্বস্ত বিমানের এক যাত্রীর বর্ণনায় অবতরণের সেই মুহূর্ত – Basic News Bangladesh
Breaking News
Home / World / দুবাইয়ে বিধ্বস্ত বিমানের এক যাত্রীর বর্ণনায় অবতরণের সেই মুহূর্ত

দুবাইয়ে বিধ্বস্ত বিমানের এক যাত্রীর বর্ণনায় অবতরণের সেই মুহূর্ত

দক্ষিণ ভারতের থিরুভান্নানথাপুরাম থেকে ছেড়ে যাওয়া আমিরাত এয়ারলাইনের ফ্লাইট ইকে-২৫১ বুধবার দুবাই বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয়েছে। এ সময় বিমানে থাকা ২৮২ জন যাত্রীর সবাই বেঁচে গেছেন। শুধুমাত্র বিমানটি আগুন নেভাতে গিয়ে একজন ফায়ার ফাইটার নিহত হয়েছেন।
rono-2

পরে সংবাদ সম্মেলনে আমিরাত এয়ারলাইনসের চেয়ারম্যান আহমেদ বিন সাইদ আল-মাকদুম বলেন, উদ্ধার তৎপরতা অত্যন্ত পেশাদারিত্বের সঙ্গে পরিচালিত হওয়ায় অসংখ্য জীবন রক্ষা করা গেছে। তিনি বলেন, বিমানের কেবিন ক্রুরা সবার শেষে বিমান ত্যাগ করেন। যা তাদের পেশাদারিত্বের উৎকর্ষতার প্রমাণ।

তিনি আরও বলেন, মাত্র ১৩ জন যাত্রী সামান্য আহত হয়েছেন, বিমানের বেঁচে যাওয়া এক যাত্রী বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে আতঙ্কের সেই মুহূর্তের কথা বর্ণনা দিয়েছেন।
’’আমাদের বিমানটি অবতরণের সময় হঠাৎ কেবিনের ভেতর ধোঁয়া ঢুকছিল।’’ বলছিলেন বিমানটির যাত্রী শারন মরিয়ম শারজি।
’মানুষজন তখন আতঙ্কে চিৎকার করছিলেন, বিমানটি খুব জোরে রানওয়েতে আছড়ে পড়ে। আমরা জরুরি বহির্গমন পথ দিয়ে বের হয়ে আসি, এবং আমরা যখন রানওয়ে ত্যাগ করছিলাম তখন দেখতে পেলাম পুরো বিমানটি আগুনে ছেয়ে গেছে।
এয়ারলাইনসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিমানটিতে ২৮২ জন যাত্রী এবং ১৮ জন ক্রু ছিল। প্রায় ২০টি পৃথক দেশের যাত্রী ছিল বিমানটিতে। যাদের বেশিরভাগ ভারতীয়। ২৪ জন ব্রিটিশ এবং ১১ জন সংযুক্ত আরব আমিরাতের।
বিধ্বস্ত বিমানটির ক্যাপ্টেন এবং প্রধান কর্মকর্তা দুজনেরই প্রায় সাত হাজার ঘন্টা ওড়ার অভিজ্ঞতা ছিল, জানায় এয়ারলাইনসটি। তারপরও এটি একটি বড় দুর্ঘটনা, যেখানে বহু অবিশ্বস্ত সূত্র থেকে ধারণার ভিত্তিতে সংবাদ পরিবেশন করা হচ্ছিল, যে কি ঘটতে চলেছে।

বিমানটি ভূমি স্পর্শ করেছিল তার ল্যান্ডিং গিয়ার ছাড়াই, কিন্তু এটি পরিস্কার নয় যে, কেন চাকাগুলো ঠিক সময়ে খোলেনি।
সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, বিমানটির ক্রুরা স্বাভাবিক ছিলেন জরুরি বহির্গমণের সময়েও। এর আগে এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল রুম থেকে কোনো অজানা কারণে তাদের বলা হয়েছিল অবতরণ না করতে এবং পুনরায় উড়ান শুরু করতে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে নিশ্চই এই অজানা কারণের উত্তর পাওয়া যাবে।
যাই হোক, এসব কথা বিমানটির ক্রুদের, যারা সেই সময় ফ্লাইট ইকে-৫২১ বিমানটির ভেতরে অবস্থান করছিলেন। বিমানটি থিরুভান্নানথাপুরাম থেকে দুবাই যাচ্ছিল।
আমিরাত মধ্যপ্রাচ্যের সর্ববৃহৎ এয়ারলাইনস এবং তাদের রয়েছে নিরাপত্তার চমৎকার রেকর্ড। কিন্তু আজকের দুর্ঘটনার পর সেই রেকর্ড অক্ষুন্ন থাকে কিনা সেটাই এখন দেখার বিষয়।

Check Also

OBAMA-sasa

রেস্তেরায় চাকরি করছে ওবামার মেয়ে! কেন জানেন কি?

তিনি প্রেসিডেন্টের মেয়ে! কিন্তু, তাতে কী হয়েছে? তা বলে তো আর নিজেকে সাবলম্বী হওয়া থেকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *